যেভাবে ফ্রিজ ব্যবহার করলে বিদ্যুৎ বিল কম আসবে

ফ্রিজ অন্যতম অনুষ’ঙ্গ। প্রয়োজনীয় এই যন্ত্রটি প্রায় সব ঘরেই আছে। খাবার দীর্ঘদিন সংরক্ষেণের জন্য ফ্রিজের জুড়ি মেলা ভার। আর পানি ঠান্ডা করতে এটা অতুলনীয়। অনেকেই প্রায়ই অ’ভিযোগ করেন, তাদের বাসা-বাড়ির ফ্রিজে বিদ্যুৎ বিল বেশি আসে। জানুন কীভাবে ফ্রিজ ব্যবহার করলে বিদ্যুৎ বিল কম আসবে।

গরমে বাড়ে বিদ্যুৎ বিল

গরমকালে ফ্রিজের ব্যবহার বাড়ে। কেননা, গরমের কারণে খাবার নষ্ট হয়ে যায়। সেকারণে খাবার ফ্রিজে রাখা দরকার। আর ফ্রিজ চালালে বিদ্যুৎ বিল লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়বে। এবং এটাই স্বাভাবিক। কিন্ত, এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব।

রেটিং দেখে ফ্রিজ কিনুন

ফ্রিজ কেনার সময় নজর রাখতে হবে সেই ফ্রিজে কত স্টার রয়েছে। যদি ১টি স্টার থাকে তাহলে সেই ফ্রিজের ক্ষেত্রে সবথেকে বেশি বিদ্যুৎ খরচ হবে। অন্যদিকে, যদি ৫ স্টার রেটিংয়ের ফ্রিজ কেনেন তাহলে সবথেকে কম বিদ্যুৎ খরচ হবে।

তবে এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হবে ১ স্টার এবং ৫ স্টার ফ্রিজের মধ্যে দামের পার্থক্য বেশ কয়েক হাজার টাকা। একবার বেশি দাম দিয়ে ৫ স্টার রেটেড ফ্রিজ কিনলেও তার জন্য প্রতিমাসে কিন্তু বেশি খরচ করতে হবে না।

সঠিক তাপমাত্রা সেট করুন

প্রয়োজন অনুযায়ী ফ্রিজের তাপমাত্রা নির্ধারণ করুন। যেমন শীতের দিনে ফ্রিজের ভেতরের তাপমাত্রা এবং গ্রীষ্মকালে ফ্রিজের ভেতরের তাপমাত্রা একইরকম হবে না। আবহাওয়ার তারতম্যর দিকে খেয়াল দিন। অযথাই ফ্রিজের রেগু’লেটারের পাওয়ার বাড়িয়ে রাখবেন না। এই পাওয়ার যত কম রাখবেন, বিদ্যুৎ বিলও কিন্তু তত কম আসবে।

গরম খাবার ফ্রিজে রাখবেন না

অনেকের অভ্যাস আছে গরম খাবার ফ্রিজে ঢুকিয়ে রাখার। এক্ষেত্রে একদমই তাড়াহুড়া করবেন না। খাবার আগে বাতাসে রেখে ঠান্ডা করুন এরপর ফ্রিজে রাখু’ন। কারণ গরম খাবার ফ্রিজে রাখলে সেটি ঠান্ডা করতে বাড়তি চাপ পড়ে কম্প্রেসারের ওপর। ফলস্বরূপ বাড়তি বিদ্যুৎ বিল জমা হয় মাস শেষে।